ফিচার



পুরুষাঙ্গ ফর্সা করতে হাসপাতালে ভীর

Logo

ছবি: সংগৃহীত

পুরুষাঙ্গ ফর্সা করতে হাসপাতালে ভীর

ফিচার ডেস্ক 2018-01-09 17:00:43

প্রিয়জনকে সন্তুষ্ট করতে নাকি নিজেকে স্মার্ট জাহির করতে; যে কারনেই হোক, থাইল্যান্ডের পুরুষরা ক্রমশ হাসপাতালমুখী হয়ে উঠেছেন তাদের পুরুষাঙ্গ ফর্সা করাতে।

ব্যাংককের লিলাক্স হাসপাতালে মাসে অন্তত ১০০ জন পুরুষ আসেন শুধুমাত্র পুরুষাঙ্গ ফর্সা করার জন্যে। বিপদ আছে জেনেও এটা করে তারা পিছপা হচ্ছেন না। অনেকে মনে করেন সঙ্গীনিকে মুগ্ধ করতে এমন বিপদের ঝুঁকি নিতেও কোনও অসুবিধা নেই।

লিলাক্স হাসাপাতালে চিকিৎসক বুনথিতা ওয়াতানাসিরি বলেন, লেজার পদ্ধতিতে এই চিকিৎসা করা হয়। ত্বকের মেলানিনকে ধ্বংস করা হয় লেজারের মাধ্যমে।

তবে ওয়াতানাসিরি বলেন, পুরুষাঙ্গ এতটাই সংবেদনশীল, যে বিপদের ঝুঁকি থাকে প্রতি মুহূর্তে। ২২ থেকে ৫৫ বছর বয়সী পুরুষরা তাদের পুরুষাঙ্গ ফর্সা করা জন্য এখানে আসেন।

আগে লিলাক্স হাসপাতালে শুধু নারীদের যৌনাঙ্গ ফর্সা (থ্রিডি ভ্যাজাইনা) করার চিকিৎসা করা হতো। মাঝেমধ্যেই পুরুষাঙ্গ ফর্সা করতে আবদেন করতেন পুরুষরাও। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এই সার্ভিস চালু করে। আর তা খুব অল্প সময়েই বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

সম্প্রতি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এই চিকিৎসার কয়েকটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায় এই খবর। এতে সমালোচনার মুখে পড়তে হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। অনেকেই বর্ণবিদ্বেষে ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগ আনছেন।

কোনও কোনও মহিলা বলেছেন রংয়ে কী আসে যায়!

তবে চিকিৎসায় সুফল পাওয়া এক পুরুষ পুরুষাঙ্গ ফর্সা করার পর আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন বলে জানায়।

জানুয়ারি ০৯, ২০১৮

Reply


Write a comment

Sign up